ইব্রাহিম (পিবিইউএইচ)ইশ্মায়েলকে অথবা ইসহাককে বলি দিয়েছিল?

যখন আমরা ভাববাদী ইব্রাহিমের (পিবিইউএইচ) পুত্রের বলিদান সম্বন্ধে আলোচনা করি, আমার বন্ধুরা দৃঢ়তার সাথে বলতে থাকে যে পুত্রটির প্রায় বলি হতে যাচ্ছিল সে হজরত ঈশ্মায়েল (বা ইসমাইল) ছিল – হাগরের দ্বারা ইব্রাহিমের (পিবিইউএইচ) পুত্র – সারার কনিষ্ঠ পুত্র ইসহাক নয় I তাই আমি যখন কুরানে এই সম্বন্ধে পড়লাম আমি বিস্মিত হলাম I যখন আমি এটিকে আমার বন্ধুদের দেখালাম তারাও বিস্মিত হল I ইব্রাহিমের 3 নম্বর চিহ্নর মধ্যে আমি এই গুরুত্বপূর্ণ ঘটনাটিকে দেখলাম, আর অধ্যায়টিকে এখানে সম্পূর্ণরূপে উদ্ধৃত করা হল I অতএব এখানে এটি কি বলে? নির্দিষ্ট পদটিকে আবার পুনরাবৃত্তি করা হল I

  অতঃপর সে যখন পিতার সাথে চলাফেরা করার বয়সে উপনীত হল, তখন ইব্রাহীম তাকে বললঃ বৎস! আমি স্বপ্নে দেখিযে, তোমাকে যবেহ করছি; এখন তোমার অভিমত কি দেখ। সে বললঃ পিতাঃ! আপনাকে যা আদেশ করা হয়েছে, তাই করুন। আল্লাহ চাহে তো আপনি আমাকে সবরকারী পাবেন।

আল-সাফ্ফাত 37:102

ইব্রাহিমের (পিবিইউএইচ) পুত্রের বলিদান সম্বন্ধে পুত্রটির নামটির এই অধ্যায়ে উল্লেখ নেই I এই ধরণের পরিস্থিতিতে আরও বিস্তৃত অন্বেষণ এবং অধ্যয়ন করা সবথেকে ভাল I আপনি যদি সমগ্র কোরানের মধ্য দিয়ে অন্বেষণ করেন যখন  ভাববাদী ঈশ্মায়েল (বা ইসমাইল) সম্বন্ধে উল্লেখ করা হয় আপনি 12 বার তার নাম দেখতে পাবেন I    

  • এর মধ্যে দুবার কেবলমাত্র একবার তার নাম তার পিতা ইব্রাহিমের  সঙ্গে করা হয়েছে (2:125, 2:127) I
  • এর মধ্যে পাঁচ বার ইব্রাহিম এবং তার ভাই ইসহাকের সঙ্গে তাকে উল্লেখ করা হয়েছে (3:84, 4, 163, 2:133, 2:136, 2:140) I
  • বাকি পাঁচটি অধ্যায় তার পিতা ইব্রাহিম ছাড়াই তাকে উল্লেখ করে, কিন্তু অন্য ভাববাদীদের একটি সূচীর সাথে (6:86, 14:39, 19:54, 21:85, 38:48) I   

দুবারের মধ্যে তাকে তার পিতার ইব্রাহিমের (পিবিইউএইচ) সঙ্গে একা উল্লেখ করা হয়েছে আপনি দেখতে পারেন এটি প্রার্থনার উপরে অন্য ঘটনাগুলোর সম্বন্ধে কথা বলছে – বলিদানের বিষয়ে নয় I

  যখন আমি কা’বা গৃহকে মানুষের জন্যে সম্মিলন স্থল ও শান্তির আলয় করলাম, আর তোমরা ইব্রাহীমের দাঁড়ানোর জায়গাকে নামাযের জায়গা বানাও এবং আমি ইব্রাহীম ও ইসমাঈলকে আদেশ করলাম, তোমরা আমার গৃহকে তওয়াফকারী, অবস্থানকারী ও রুকু-সেজদাকারীদের জন্য পবিত্র রাখ।

আল-বাকারাহ 2:125

স্মরণ কর, যখন ইব্রাহীম ও ইসমাঈল কা’বাগৃহের ভিত্তি স্থাপন করছিল। তারা দোয়া করেছিলঃ পরওয়ারদেগার! আমাদের থেকে কবুল কর। নিশ্চয়ই তুমি শ্রবণকারী, সর্বজ্ঞ।

আল-বাকারাহ 2:127

পবিত্র কোরান কখনও নির্দিষ্ট করে না যে এ ঈশ্মায়েল ছিল যাকে বলিদানের দ্বারা পরীক্ষা করা হয়েছিল, এটি কেবল বলে ‘পুত্রটি’ I সুতরাং কেন এটিকে বিশ্বাস করা যায় যে এ ইশ্মায়েল ছিল যাকে অর্পণ করা হয়েছিল?

ইব্রাহিমের পুত্রের বলিদানের উপরে টিপ্পনি

ইউসুফ আলী কোরানের একজন শ্রদ্ধাবান টীকাকার তথা একজন অনুবাদক I তার টীকা  http://al-quran.info তে পাওয়া যায়  

বলিদানের অধ্যায়ের টিপ্পনির মধ্যে পুত্রের বলি হওয়ার উপরে নিম্নলিখিত দুটি পাদটীকা রয়েছে I 

4071 এটি সুরিয়া এবং পলেস্টিয়র উর্বর জমির মধ্যে ছিল I এইরূপে মুসলমান পরম্পরা অনুসারে আব্রাহামের প্রথম জাত বালকটি, অর্থাৎ … ইশ্মাইল জন্মগ্রহণ করল I নামটি স্বয়ং সামিয়ার মূল থেকে এসেছে, শুনতে লাগে, যেহেতু ঈশ্বর আব্রাহামের প্রার্থনা শুনেছেন (পদ 100) I ইশ্মাইলের জন্মগ্রহণের সময় আব্রাহামের বয়স ছিল 86 বৎসর    

আদিপুস্তক 16:16

এখানে ‘মুসলমান পরম্পরা’ হল ইউসূফ আলির একমাত্র যুক্তি I

4076 আমাদের সংস্করণকে বর্তমান পুরনো নিয়মের যিহূদিয়-খ্রিষ্টীয় সংস্করণের সঙ্গে তুলনা করা যেতে পারে I পরিবারের কনিষ্ঠ শাখাকে গৌরবান্বিত করার উদ্দেশ্যে, যিহূদিয় পরম্পরা য়িহূদিদের পূর্বপুরুষ ইসহাকের থেকে উদ্ভূত হয়েছে পরিবর্তে অগ্রজ শাখা, আরবীয় পূর্বপুরুষ ইশ্মায়েলের থেকে উদ্ভূত হয়েছে, এই বলিদান ইসহাককে উল্লেখ করে (আদিপুস্তক 22:1-18) I এখন আব্রাহামের বয়স যখন 100 বছর ছিল ইসহাক তখন জন্মগ্রহণ করল I (আদিপুস্তক 21:5), যখন আব্রাহাম 86 বছরের ছিল তখন ইশ্মাইল তার কাছে জন্মগ্রহণ করল (আদিপুস্তক 16:16) I অতএব ইশ্মায়েল ইসহাকের থেকে 14 বছরের বড় ছিল I তার প্রথম 14 বছর আব্রাহামের একমাত্র পুত্র ছিল ইশ্মাইল; শীঘ্রই আব্রাহামের একমাত্র পুরো হল ইসহাক I যদিও, বলিদানের কথা বলতে গিয়ে, পুরনো নিয়ম বলে (আদিপুস্তক 22:২): ‘আর তিনি বললেন তোমার পুত্রকে এখন নাও, তোমার অদ্বিতীয় পুত্র ইসহাককে, যাকে তুমি ভালবাস, তাকে নিয়ে মোরিয়া দেশে যাও; এবং সেখানে এক হোম বলির জন্য তাকে সমর্পণ কর…”       

এই পাদটীকার মধ্যে তিনি তর্ক দেন যে যেহেতু তৌরাত বলে ‘তোমার পুত্রকে নাও, তোমার একমাত্র পুত্রকে…(আদিপুস্তক 22:2) আর ইশ্মাইল 14 বছরের বড় ছিল, অতএব একমাত্র ইশ্মাইলকে বলিদানের জন্য সমর্পণ করতে পারা যেত এক ‘একমাত্র পুত্র’ রূপে I কিন্তু তিনি ভুলে যান যে ঠিক পূর্বে, আদিপুস্তক 21 এর মধ্যে, ইব্রাহিম (পিবিইউএইচ) ঈশ্মায়েল এবং হাগরকে দুরে পাঠিয়ে দিয়েছেন I এইরূপে, আদিপুস্তক 22 এর মধ্যে ইসহাক আসলে তার ‘একমাত্র পুত্র’ যেহেতু ঈশ্মায়েল উধাও হয়ে   গেছে I এর উপরে আরও বিশদভাবে এখানে দেখুন I  

ইব্রাহিমের পুত্র বলি হল: তৌরাতের স্বাক্ষী

সুতরাং কোরান নির্দিষ্ট করে না কোন পুত্র, কিন্তু তৌরাত অত্যন্ত স্পষ্ট I আপনি দেখতে পারেন যে আদিপুস্তক 22 এর মধ্যে তৌরাত ছয় বার বিভিন্ন স্থানে ইসহাকের নাম ধরে উল্লেখ করেছে (22: 2, 3, 6, 7, (দু বার), 9 র মধ্যে) I  

ভাববাদী মহম্মদের (পিবিইউএইচ) দ্বারা তৌরাত সমর্থিত হয়েছে

যে তৌরাত আমাদের কাছে আজ আছে তা যে ভাববাদী মহম্মদের (পিবিইউএইচ) দ্বারা সমর্থিত হয়েছিল তা হাদ্দিথ সমূহের থেকে স্পষ্ট হয় I এর উপরে আমার পোস্ট বিভিন্ন হাদ্দিথ সমূহের উল্লেখ করে, যাদের মধ্যে একটি বলে যে

আবদুল্লাহ ইবনে উমর (রাঃ) থেকে বর্ণিত: .. একদল ইহুদি এসে আল্লাহর রাসূল (সাঃ) কে কফ-তে দাওয়াত দিয়েছিল। … তারা বলেছিল: ‘আবুলকাসিম, আমাদের একজন পুরুষ এক মহিলার সাথে ব্যভিচার করেছে; সুতরাং তাদের উপর রায় ঘোষণা করুন ’। তারা আল্লাহর রাসূল (সা।) – এর উপরে বসে একটি গদি রাখে এবং বলেছিল: “তাওরাত নিয়ে এসো”। এটি তখন আনা হয়েছিল। অতঃপর তিনি তার নীচ থেকে কুশনটি সরিয়ে নিয়ে তাওরাতকে এই বলে রাখলেন: “আমি তোমাকে ও তাঁর প্রতি inমান এনেছি যে তোমাকে অবতীর্ণ করেছে।”

সুনানে আবু দাউদ বই 38, নং 4434:

তৌরাত ভাববাদী ঈসা আল মসীহর (পিবিইউএইচ) দ্বারা সমর্থিত হয়েছে  

ভাববাদী ঈসা আল মসীহও (পিবিইউএইচ) তৌরাতকে সমর্থন করেছেন যেমনটি আমরা এখানে দেখলাম I ওই নিবন্ধের মধ্যে তাঁর একটি শিক্ষা বলে  

 18 সত্যিই আমি আপনাকে বলছি, যতক্ষণ না স্বর্গ ও পৃথিবী অদৃশ্য হয়ে যায়, ততক্ষণ পর্যন্ত ক্ষুদ্রতম অক্ষর নয়, একটি কলমের সর্বনিম্ন স্ট্রোকও কোনওভাবেই আইন (যেমন তৌরত) থেকে অদৃশ্য হয়ে যাবে যতক্ষণ না সমস্ত কিছু সম্পন্ন হয়। 19 সুতরাং যে কেউ এই আদেশগুলির মধ্যে একটিকেও স্বল্পতম স্থিত করে এবং সে অনুযায়ী অন্যকে শিক্ষা দেয়, তাকে স্বর্গরাজ্যে সবচেয়ে কম বলা হবে, কিন্তু যে কেউ এই আদেশগুলি পালন করে এবং শিক্ষা দেয় সে স্বর্গরাজ্যে মহান বলে ডাকা হবে।

মথি 5: 18-19

সাবধান: তৌরাতের উপরে পরম্পরা কখনও নয়

যে কোন পরম্পরার স্বার্থে মশির তৌরাতকে বাতিল করা বিচক্ষণ হবে না I আসলে, ভাববাদী ঈসা আল মসীহ তার সময়ের ধার্মিক নেতাদের যথাযথ সমালোচনা করেছেন কারণ তারা ‘পরম্পরাগুলোকে’ ব্যবস্থার আগে রেখেছে, যেমন আমরা এখানে দেখি: 

 Jesusসা (আ। Isaসা) জবাব দিয়েছিলেন, “এবং কেন আপনি আপনার traditionতিহ্যের জন্য Godশ্বরের আদেশ ভঙ্গ করছেন? কারণ Godশ্বর বলেছেন, ‘তোমার পিতাকে এবং মাকে সম্মান করো’ এবং ‘যে কেউ তার পিতা বা মাকে অভিশাপ দেয় তাকে অবশ্যই মৃত্যুদণ্ড দেওয়া উচিত’ ‘ toশ্বরের কাছে, ‘তারা এর সাথে’ তাদের পিতাকে বা মাকে সম্মান করবে না ‘। সুতরাং আপনি আপনার traditionতিহ্যের জন্য Godশ্বরের বাণীকে বাতিল করেন। তোমরা ভণ্ড!

মথি 15: 3-7

‘পরম্পরার’ স্বার্থে কখনও বার্তাটিকে বাতিল না করা সম্বন্ধে ভাববাদীর সাবধানতা অত্যন্ত স্পষ্ট .

আজকের তৌরাতের স্বাক্ষী মৃত সাগরের হস্তলিপি সমূহ দ্বারা সমর্থিত হয়েছে

নিম্নলিখিত চিত্রটি দেখায় যে তৌরাতের প্রাচীনতম পান্ডুলিপিগুলো (ডেড সী স্ক্রোলস), 200 খ্রীষ্টপুর্বাদের সময়ে (এখানে এর উপরে আরও অধিক) I এর অর্থ হল যে ভাববাদী মহম্মদ (পিবিইউএইচ) এবং ভাববাদী ঈসা আল মসীহ (পিবিইউএইচ) দ্বারা যে তৌরাতের উল্লেখ করা হয়েছে তা আজকের ব্যবহৃত তৌরাতের সঙ্গে হুবহু এক I  

The Bible through time

আজকের বাইবেলের পান্ডুলিপি – দীর্ঘ সময় থেকে

ভাববাদীদের দ্বারা প্রকাশিত সেগুলোর প্রতি ফিরে আসছি যা আমাদের জন্য এই প্রশ্নটিকে প্রাঞ্জল করে I

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *